কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির সহায়তায় ব্র্যাক-আইএসডি-র আনুষ্ঠানিক যাত্রা

এসডিজি অর্জনে শ্রমিকদের দক্ষতার ওপর গুরুত্বারোপ

দেশে মোট শ্রমশক্তির ৮৭ শতাংশই কৃষি, ক্ষুদ্রব্যবসাসহ নানা অনানুষ্ঠানিক পেশায় নিয়োজিত। শ্রমশক্তির এত বড় অংশের শ্রমিকদের যথাযথ মূল্যায়ন হচ্ছে না। আবার উপযুক্ত প্রশিক্ষণ ও দক্ষ কর্মী না থাকায় তাদের অনেকে প্রত্যাশিত ভূমিকা রাখতে পারছেন না। যা টেকসই লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে অন্যতম বড় চ্যালেঞ্জ।

আজ মঙ্গলবার (১০ই এপ্রিল, ২০১৮) রাজধানীর উত্তরার আশকোনায় ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব স্কিলস ডেভেলপমেন্ট (ব্র্যাক-আইএসডি)-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ তথ্য তুলে ধরা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ন্যাশনাল স্কিলস ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিল সেক্রেটারিয়েটের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম খোরশেদ আলম, উপআনুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো-’র প্রকল্প পরিচালক ড. আলফাজ হোসেন, ইউনেসকো ঢাকা অফিসের প্রধান বেকট্রিক কালদুন, ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক ডা. মুহাম্মাদ মুসা, ব্র্যাকের দক্ষতা উন্নয়ন কর্মসূচির প্রধান আহমেদ তানভির আনাম প্রমুখ। ব্র্যাকের দক্ষতা উন্নয়ন কর্মসূচি আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ সংক্রান্ত উপস্থাপনা তুলে ধরেন সংস্থাটির স্ট্রাটেজি, কমিউনিকেশন্স অ্যান্ড এমপাওয়ারমেন্ট কর্মসূচির ঊর্ধ্বতন পরিচালক আসিফ সালেহ্।

উপস্থাপনায় বলা হয়, দেশে প্রতি বছর ২০ লাখের অধিক মানুষ শ্রম বাজারে আসছে। ২০২৫ সালের মধ্যে বাংলাদেশে কর্মক্ষম মানুষের সংখ্যা ৭ কোটি ৬০ লাখে উন্নীত হবে। শ্রমবাজারে আসা ৬০ শতাংশের বয়স ৩০ বছরের নিচে। এত বিশালসংখ্যক তরুণ শ্রমবাজারে এলেও তাদের ৪০ শতাংশই কর্মহীন ও দক্ষতাহীন। এই পরিস্থিতিতে উপযুক্ত কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টিতে সহায়তা ও দক্ষকর্মী গড়ে তুলতে ২০১৫ সালের মার্চ মাসে ব্র্যাক দক্ষতা উন্নয়ন কর্মসূচি চালু করে। এরই অংশ হিসেবে ব্র্যাক-আইএসডি যাত্রা শুরু করেছে।

এতে ইলেকট্রিক্যাল ইন্সটলেশন অ্যান্ড মেইনটেন্যান্স, রেফ্রিজারেশন অ্যান্ড এয়ারকন্ডিশনিং, সুইং মেশিন অপারেশন, হাউজ কিপিং অকোপেশন, হসপিটালিটি এন্ড ট্যুরিজম সার্ভিসেস, গ্রাফিক ডিজাইন অ্যান্ড আউট সোর্সিং, রিটেইল সেইলস (পণ্যবিক্রয় সংক্রান্ত) ও সফট স্কিল (সচেতনতামূলক) এই ৮টি বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। বিষয় অনুযায়ী সর্বনিম্ন ৩ দিন থেকে ৩ মাস পর্যন্ত প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। কোর্স ফি ১৫০০ টাকা থেকে সাড়ে ৭ হাজার টাকা পর্যন্ত। তবে প্রতিবন্ধী ও দরিদ্র নারীদের জন্য বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা আছে। এর পাশাপাশি প্রশিক্ষণার্থী ও উদ্যোক্তাদের জন্য ঋণের ব্যবস্থা আছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এতে দুটি শিফটে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সনদপ্রাপ্ত দক্ষ প্রশিক্ষক আধুনিক উপকরণ ব্যবহার করে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকেন। প্রশিক্ষণ শেষে প্রশিক্ষণার্থীদের দক্ষতা অনুযায়ী চাকুরি পেতেও সহায়তা করা হয়।

ব্র্যাকের উদ্যোগে এই ইনস্টিটিউট ছাড়া টঙ্গি, মানিকগঞ্জ, গাজীপুর, পাবনা, নীলফামারি, রংপুর, মাগুরা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, সাভার, আশুলিয়া, নারায়ণগঞ্জ এবং কুমিল্লায় এ ধরনের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি বলেন, শিক্ষা আমাদের অগ্রাধিকার। কিন্তু কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার আমাদের আরও অগ্রাধিকার। কিন্তু এখানে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গিগত সমস্যা। আমাদের সমাজের সবার দৃষ্টিভঙ্গি থাকে ‘উচ্চতর ডিগ্রি' নেয়ার দিকে। এছাড়া এক্ষেত্রে আরও দুটি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হচ্ছে। এগুলো হচ্ছে: কারিগরি শিক্ষায় অনাগ্রহের কারণে মেয়েদের ভর্তি কম হওয়া ও চাহিদা অনুযায়ী শিক্ষক স্বল্পতা।

তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের দেশে চার বছর মেয়াদি ৪৯ টি পলিট্যাকনিক্যাল কলেজ আছে। দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে সরকার ভবিষ্যতে আরও ৩৪টি পলিট্যাকনিক্যাল করার পরিকল্পনা নিয়েছে।

তিনি পলিট্যাকনিক্যাল শিক্ষায় গতানুগতিক ‘সিলেবাস’ এর পরিবর্তে আধুনিক ধারার শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দেন। তিনি বলেন, নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে তরুণদের সম্পৃক্ত করতে না পারলে চাকরির ক্ষেত্রে আমরা কোনভাবেই ভালো করতে পারব না।

বেকট্রিক কালদুন বলেন, এসডিজি-আট লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে দীর্ঘমেয়াদি ও উপযুক্ত কাজের সুবিধার বিষয়টি বিশেষভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এই উপস্থাপনা থেকে আমি জানতে পেরেছি শ্রমবাজারে আসা ৬০ শতাংশের বয়স ৩০ বছরের নিচে। এই তরুণদেরকে শুধু প্রশিক্ষণ দিলেই হবে না, বরং চাকরির বাজারের চাহিদা অনুযায়ী তাদের ‘গুণগত প্রশিক্ষণ’ আরও জরুরি।

ডা. মুহাম্মাদ মুসা দেশে-বিদেশে চাকুরির বাজার প্রবেশের ক্ষেত্রে আরও বেশি সংখ্যক স্কিলস ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট গড়ে তোলা এবং গুণগত প্রশিক্ষণ দেওয়ার ওপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন।

আমাদের কর্মস্থল

                

ব্র্যাক কুইজ

কোনটি দারিদ্র্য দূরীকরনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী?

বিকল্প যোগাযোগ পন্থা